বিষয়ভিত্তিক হাদিস

দান করার ফজীলত

Alorpath 6 months ago Views:94

"যারা দিনে রাত্রে, প্রকাশ্যে গোপনে নিজেদের ধন সম্পদ দান করে, তাদের জন্য রয়েছে তাদের পালন কর্তার নিকট পুরস্কার। তাদের কোন আশংকার কারন নেই এবং তারা কখনো চিন্তিত হবে না।


মহান আল্লাহ বলেন,আমি তোমাদেরকে যে রিজিক দান করেছি তা থেকে মৃত্যুর পূর্বে ব্যয় কর

. আবু হোরায়রা (রা:)হতে বর্ণিত-

তিনি বলেন, এক ব্যক্তি নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট এসে জিজ্ঞেস করল, ইয়া রাসূলাল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোন প্রকার দান সর্বাধিক পুণ্যজনক? তিনি বললেন, তুমি সুস্থ তোমার অর্থের প্রয়োজন থাকাবস্থায় (যে দান করবে) এবং তুমি অভাব গ্রস্ততার আশংকা করতেছ, ধনী হওয়ার আশাও করতেছ এমন অবস্থায় যে দান করবে। আর সময় পর্যন্ত বিলম্ব করবে না যখন তোমার প্রাণ কণ্ঠাগত হবে, আর তুমি বলবে, অমুককে এত এবং অমুককে পরিমান দিলাম। বস্তুত:তা তো তখন অপরের হয়ে গেছে

সহীহ বুখারী শরীফ , হাদীস নং-১৩৩৫,সকল খন্ড একত্রে


. আয়েশা( রা:)হতে বর্ণিত-

নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কোন কোন স্ত্রী তাকে জিজ্ঞেস করলেন, আমাদের মধ্যে কে সকলের আগে (মৃত্যুর পর) আপনার সাথে মিলিত হবে? তিনি বললেন, যে তোমাদের মধ্যে সর্বাপেক্ষা দরাজ দস্ত অর্থাৎ দীর্ঘ হস্তের অধিকারিণী। তখন তারা একটি কাঠি নিয়ে (নিজেদের সকলের) হাত মেপে দেখলেন, সাওদাহ (রা:) তাদের মধ্যে সর্বাপেক্ষা দীর্ঘহস্ত।পরে সকলের আগে জয়নবের মৃত্যু হলে আমরা বুঝতে পেলাম যে, হস্তের দীর্ঘতার অর্থ দানশীলতা। তিনি (জয়নব) আমাদের মধ্যে সকলের আগে তার নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সাথে মিলিত হলেন এবং তিনি দান খয়রাত করা অধিক ভালোবাসতেন

সহীহ বুখারী শরীফ, হাদীস নং-১৩৩৬.সকল খন্ড একত্রে

তেলাঅত ও দুআর ফযীলত

. হজরত আবু হুরায়রা(রা:) থেকে বর্ণিত-

নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, একদা এক ব্যক্তি বলল, অবশ্যই আমি কিছু দান খয়রাত করব।তারপর সে তার দানের অর্থ নিয়ে বের হল এবং তা একটি চোরকে দিল। ভোর বেলা লোকেরা বলাবলি করতে লাগলো, একটি চোরকে দান করা হয়েছে। লোকটি বলল, হে আল্লাহ! সমস্ত প্রশংসা তোমারই। একটি জেনাকারিনীকে দান করা হলো! আমি অবশ্যই কিছু দান খয়রাত করব; সুতরাং সে তার অর্থ নিয়ে বের হলো এবং তা এক ধনী ব্যক্তি কে দিয়ে দিল। সকাল বেলা লোকেরা বলাবলি করতে লাগলো, এক ধনী ব্যক্তিকে দান করা হলো! পরে তাকে বলা হয়, তোমার এসব দানের ব্যাপারে জ্ঞাতব্য হলো, হয়ত বা কারণে চোরটি চুরি করা হতে বিরত থাকবে এবং ব্যাভিচারিণী ব্যভিচার হতে ফিরে যাবে। আর ধনী ব্যক্তি  হয় তো উপদেশ গ্রহণ করবে এবং আল্লাহ তাকে যা দিয়েছেন তা হতে কিছু দান করবে

সহীহ বুখারী শরীফ,হাদিস নং-১৩৩৭.সকল খন্ড একত্রে

স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কিত সকল তথ্য জানতে এখানে ক্লিক করুন-

. হজরত মা'আন ইবনে ইয়াযিদ (রা:)হতে বর্ণিত-

তিনি বলেন, আমার পিতা, আমার দাদা এবং আমি নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর নিকট বায়আত করেছিলাম। তিনি  আমার বিয়ের পয়গাম পাঠালেন এবং আমাকে বিয়ে করে দিলেন। আমি তার নিকট একটি অভিযোগ নিয়ে গেলাম। আমার পিতা ইয়াযিদ দান করার জন্য কয়েকটি দীনার বের করলেন এবং মসজিদে এক ব্যক্তির নিকট তা রেখে দিলেন। অতঃপর আমি গিয়ে তা গ্রহণ করলাম এবং তা নিয়ে আমার পিতার নিকট উপস্থিত হলাম। তিনি বললেন, আল্লাহর  কসম, আমি তো তোমাকে তা দান করার ইচ্ছা করিনি। আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কাছে নালিশ করলে তিনি বললেন, হে ইয়াযিদ! তুমি যে নিয়ত করেছিলে তা তোমার এবং হে মা'আন ইবনে ইয়াযিদ! তুমি যা গ্রহণ করেছ তা তোমারই

সহীহ বুখারী শরীফ,হাদিস নং-১৩৩৮,সকল খন্ড একত্রে

প্রকাশ্যে দান খয়রাত করা-

আল্লাহ পাক বলেন- "যারা দিনে রাত্রে, প্রকাশ্যে গোপনে নিজেদের ধন সম্পদ দান করে, তাদের জন্য রয়েছে তাদের পালন কর্তার নিকট পুরস্কার। তাদের কোন আশংকার কারন নেই এবং তারা কখনো চিন্তিত হবে না। "(সূরা বাকারা:আয়াত২৭৪)



মন্তব্য