ঈমান

সুন্নাতকে আঁকড়ে ধরা এবং বিদআত থেকে সতর্ক থাকা ওয়াজিব।

Alorpath 2 months ago Views:248

যে ব্যক্তি আমার এ দ্বীনের মধ্যে নতুন কোনাে জিনিস আবিষ্কার করবে যা এর অন্তর্ভুক্ত নয় তা প্রত্যাখ্যাত।


রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু 'আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদেরকে সুন্নাতকে আঁকড়ে ধরার নির্দেশ দিয়েছেন এবং বিদআত সৃষ্টি করা থেকে নিষেধ করেছেন। কারণ ইসলাম একটি পরিপূর্ণ দ্বীন, আল্লাহ তা'আলা এবং তার রাসূল যা শরীয়ত হিসাবে দিয়েছেন এবং যা আহলে সুন্নাত ও জামা'আত তথা সাহাবা ও তাবে'ঈগণ গ্রহণ করেছেন তা-ই স্বয়ংসম্পূর্ণ।

নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে প্রমাণ রয়েছে যে, তিনি বলেছেন, “যে ব্যক্তি আমার এ দ্বীনের মধ্যে নতুন কোনাে জিনিস আবিষ্কার করবে যা এর অন্তর্ভুক্ত নয় তা প্রত্যাখ্যাত।” (বুখারী হাদীস নং ২৬৯৭ ও মুসলিম হাদীস নং ১৭১৮)


অন্য বর্ণনায় এসেছে: “যে ব্যক্তি এমন কোনাে আমল করবে যা আমার শরীয়ত সমর্থিত নয় তা প্রত্যাখ্যাত।”

তিনি অন্য হাদীসে আরও বলেন: “তােমাদের উপর ওয়াজিব হলাে: তােমরা আমার সুন্নাতকে আঁকড়ে ধর এবং আমার পর সুপথ প্রাপ্ত খলীফাদের সুন্নাতকে আঁকড়ে ধর এবং তা দন্ত দ্বারা দৃঢ়তার সাথে ধারণ কর আর (দ্বীনে) নব রচিত কর্মসমূহ হতে সাবধান থাক! কেননা প্রতিটি নব রচিত কর্ম হচ্ছে বিদ'আত এবং সকল বিদ'আত হচ্ছে ভ্রষ্টতা।” (আহমাদ ১৬৬৯৫, আবু দাউদ ৪৬০৭, তিরমিযী ২৬৭৬ এবং ইবনে মাজাহ ৪২)

আল্লাহ সুবহানাতায়ালা বলেন: “আজ আমি তােমাদের জন্য তােমাদের দ্বীনকে পূর্ণাঙ্গ করলাম, তােমাদের উপর আমার নেয়ামতকে সম্পূর্ণ করলাম এবং ইসলামকে দ্বীন হিসাবে তােমাদের জন্য মনােনীত করলাম। [সূরা মায়েদা/৩]

এ সকল আয়াত স্পষ্ট প্রমাণ করে যে, আল্লাহ তাআলা এ উম্মতের জন্য দ্বীনকে পরিপূর্ণ করে দিয়েছেন এবং তার নেয়ামতকে তাদের উপর সম্পন্ন করেছেন। তিনি তার নবীকে মৃত্যুদান করেননি যতক্ষণ না তিনি স্পষ্টভাবে উম্মতের নিকট তা পৌঁছিয়েছেন এবং আল্লাহ যা শরীয়ত করেছেন তা তাদের জন্য বর্ণনা করেছেন, চাই তা কথা হােক বা কাজ হােক এবং এও স্পষ্ট বলে দিয়েছেন যে, তাঁর মৃত্যুর পরে যারা নতুন কিছু আবিষ্কার করে দ্বীনের অন্তর্ভুক্ত করবে তা কথা হােক বা কাজ হােক এ সবই বিদ'আত বলে গণ্য হবে এবং তা এর আবিষ্কারকের উপর ফিরিয়ে দেওয়া হবে যদিও তার উদ্দেশ্য ভালাে থাকে।

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এবং অন্য যে কারাে জন্ম দিবস পালন করা জায়েয নেই বরং তা নিষেধ করা ওয়াজিব, কারণ তা দ্বীনের মধ্যে একটি নব আবিষ্কৃত বিদ'আত যা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু 'আলাইহি ওয়াসাল্লাম কখনাে করেননি, তিনি তাঁর নিজের জন্য বা তাঁর পূর্বে মৃত্যুবরণকারী কোনাে নবী, তাঁর মেয়েগণ বা স্ত্রীগণ বা তাঁর কোনাে আত্মীয়-স্বজন অথবা কোনাে সাহাবীর জন্ম দিবস পালন করার নির্দেশ দেননি। এমনকি তাঁর কোনাে খালীফায়ে রাশেদ বা সাহাবী রাদিয়াল্লাহু 'আনহুম অথবা কোনাে তাবেঈ এবং স্বর্ণযুগে সুন্নাতে মুহাম্মাদিয়ার কোনাে আলেম তা করেননি। অথচ তারাই সুন্নাত সম্পর্কে সকলের চেয়ে বেশী অবগত এবং রাসূলের মহব্বতের ক্ষেত্রে সর্বাগ্রে এবং তাদের পরবর্তী লােকদের চেয়ে তাঁর বেশী অনুসরণকারী। যদি তা পালন করা ভালাে হতাে, তাহলে অবশ্যই তারা আমাদের চেয়ে আগে পালন করতেন।


আল্লাহ সুবহানাতায়ালা আমাদের এই ভয়াবহ রোগ বিদাআত থেকে বেঁচে থাকার তৌফিক দান করুন। আমিন।



মন্তব্য